শুক্রবার বিদেশ যেতে চান প্রধান বিচারপতি

নিউজ ইভেন্ট২৪/জ. হাসান

১১ অক্টোবর ২০১৭,বুধবার, ০৮:২০

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা আগামী ১৩ অক্টোবর বা তার কাছাকাছি সময়ে বিদেশ যেতে চান। আগামী ১০ নভেম্বর পর্যন্ত থাকতে চান বিদেশে।

বিষয়টি জানিয়ে গতকাল মঙ্গলবার রাষ্ট্রপতি বরাবর চিঠি দিয়েছেন তিনি। এ বিষয়ে সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার মো. জাকির হোসেনের সই করা একটি চিঠি গতকাল বিকেলে আইন মন্ত্রণালয়ে পৌঁছেছে। এ চিঠি রাষ্ট্রপতির দপ্তরে পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে বলে জানা গেছে।


রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ নিজ জেলা কিশোরগঞ্জে থাকায় তাড়াহুড়োর কিছু দেখছে না আইন মন্ত্রণালয়। রাষ্ট্রপতি তাঁর দপ্তরে ফেরার পর ছুটি মঞ্জুর হলে এ বিষয়ে গেজেট জারি হবে। এরপরই প্রধান বিচারপতি বিদেশ যেতে পারবেন। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, এ প্রক্রিয়া শেষে ১৩ অক্টোবর শুক্রবার প্রধান বিচারপতি অস্ট্রেলিয়ার উদ্দেশে ঢাকা ছাড়তে পারেন। তিনি অস্ট্রেলিয়ায় তাঁর বড় মেয়ের কাছে উঠবেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, প্রধান বিচারপতির চিঠিতে বলা হয়েছে, তিনি শারীরিকভাবে অসুস্থ।

মানসিকভাবে অবসাদগ্রস্ত। এ কারণে বিশ্রামের জন্য ১৩ অক্টোবর বা তার কাছাকাছি সময়ে বিদেশ যেতে চান।
এদিকে প্রধান বিচারপতির ছুটিতে যাওয়া নিয়ে পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি পালন করছেন সরকার সমর্থক ও বিএনপি সমর্থক আইনজীবীরা। উভয় পক্ষ আজ বুধবার মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করার ঘোষণা দিয়েছে।

অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে গত ২ অক্টোবর থেকে এক মাসের ছুটিতে আছেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা। এরই মধ্যে গত ৫ অক্টোবর তিনি সস্ত্রীক অস্ট্রেলিয়ার ভিসার জন্য আবেদন করেন। সেদিন তিনি ও তাঁর সহধর্মিণী গুলশান ২ নং সার্কেলে অস্ট্রেলিয়ার ভিসা সেন্টারে যান। সেখানে তাঁরা বায়োমেট্রিক প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে বাসায় ফেরেন। এরই মধ্যে ভিসা পেয়ে গেছেন। ৫ অক্টোবর বিকেলে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক প্রধান বিচারপতির বাসায় যান এবং তাঁর সঙ্গে কথা বলেন। এরপর প্রধান বিচারপতি ঢাকেশ্বরী মন্দিরে যান পূজা দিতে। সেখানে অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী ও অ্যাডভোকেট রানা দাশগুপ্তর সঙ্গে কথা বলেন প্রধান বিচারপতি।

পরদিন ৬ অক্টোবর প্রধান বিচারপতির বাসায় যান প্রধানমন্ত্রীর পররাষ্ট্রবিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী। এ ছাড়া প্রায় প্রতিদিনই তাঁর বাসায় যাচ্ছেন সুপ্রিম কোর্টের কর্মকর্তা, আত্মীয়-স্বজন ও চিকিৎসক। বিশেষ করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) অধ্যাপক ডা. সজল কৃষ্ণ ব্যানার্জি নিয়মিতভাবে দেখছেন প্রধান বিচারপতিকে।

গত রবিবার সকালে মহাখালীতে আইসিডিডিআরবি ক্যাম্পাসে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করিয়েছেন প্রধান বিচারপতি। ওই দিন দুপুরে বিএসএমএমইউয়ের ফিজিক্যাল মেডিসিন অ্যান্ড রিহ্যাবিলিটেশন বিভাগের অধ্যাপক ডা. মো. এ কে এম সালেক প্রধান বিচারপতির বাসায় যান। পরদিন সোমবার প্রধান বিচারপতির বাসভবনে যান একই বিশ্ববিদ্যালয়ের ইউরোলজি বিভাগের অধ্যাপক হাবিবুর রহমান।

বিএসএমএমইউয়ের কার্ডিওলজি বিভাগের অধ্যাপক ডা. সজল কৃষ্ণ ব্যানার্জি গতকালও বেলা পৌনে ৩টার দিকে প্রধান বিচারপতির বাসায় যান। তিনি প্রায় একঘণ্টা ছিলেন সেখানে।

‘ছুটি নিয়ে রাজনীতি করতে দেওয়া হবে না’

গতকাল দুপুরে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি ভবনের উত্তর হলে সরকার সমর্থক আইনজীবীরা প্রতিবাদসভা করেছেন। ‘আদালত অঙ্গনকে রাজনীতিকরণ এবং বিএনপি-জামায়াতপন্থী আইনজীবীদের অপতৎপরতা ও ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে প্রতিবাদসভা’ শিরোনামে ওই সভা আয়োজন করে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ।

পরিষদের আহ্বায়ক ও সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য দেন বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আবদুল বাসেত মজুমদার, অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট আব্দুল মতিন খসরু এমপি, সাবেক প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকু, আওয়ামী লীগের আইনবিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট শ ম রেজাউল করিম, পরিষদের সদস্যসচিব ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস প্রমুখ।

ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন বলেন, প্রধান বিচারপতি ছয় বছর ধরে ক্যান্সারে আক্রান্ত। বিদেশে চিকিৎসাও নিয়েছেন। অসুস্থতার জন্য তিনি ছুটিতে গেছেন। কিন্তু এই ছুটি নিয়ে রাজনীতি করা হচ্ছে। এটা নিয়ে আইনজীবী সমিতির নামে রাজনীতি করতে দেওয়া হবে না।

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে আইনজীবী সমিতিকে ব্যবহার করা হচ্ছে। বিচার বিভাগের ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্য তারা এসব করছে। তাই এই অফিসে তাদের আর ঢুকতে দেওয়া উচিত হবে না।

ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস বলেন, ‘সুপ্রিম কোর্ট অঙ্গনকে আমরা কোনো রাজনৈতিক দলের শাখা হতে দেব না। প্রয়োজন হলে আইনজীবী সমিতির সাধারণসভা করে সভাপতি-সম্পাদককে প্রতিহত করব। সমিতি থেকে তাঁদের বিতাড়িত করব। ’

বিএনপি সমর্থক আইনজীবীদের মানববন্ধন

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন ও সম্পাদক ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকনের নেতৃত্বে সমিতির ব্যানারে বিএনপি সমর্থক আইনজীবীরা মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন। গতকাল দুপুরে সমিতি ভবনের সামনে ওই মানববন্ধন কর্মসূচিতে অংশ নেন অ্যাডভোকেট মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, নিতাই রায় চৌধুরী, সমিতির সাবেক সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন আহমেদ, সমিতির বর্তমান সম্পাদক ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, সাবেক বিচারপতি ফয়সাল মাহমুদ ফয়জী, আহমেদ আজম খান, ঢাকা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি সানাউল্লাহ মিয়া, তৈমূর আলম খন্দকার, এ বি এম ওয়ালিউর রহমান খান, আবেদ রাজা, খালেদা পান্না, গোলাম মো. চৌধুরী আলাল, ব্যারিস্টার কায়সার কামাল, সমিতির সহসভাপতি উম্মে কুলসুম রেখা, সদস্য আয়শা আক্তার, শামীমা সুলতানা দীপ্তি প্রমুখ।

 

 


প্রতিদিনের খবরগুলো ফেসবুকে পেতে নিচের লাইক অপশনে ক্লিক করুন-

Logo

সম্পাদক: পল্লব মুনতাকা। জ্যাকম্যান, মেডওয়ে, ইউএসএ
ইমেইল: mail.newsevent24@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | newsevent24 2017