রাম রহিমের সঙ্গে 'গোপন' সন্তান জন্ম দিতে চেয়েছিল হানিপ্রীত!

নিউজ ইভেন্ট২৪/আর

০৮ অক্টোবর ২০১৭,রবিবার, ১৮:৩৭

রাম রহিমের সঙ্গে 'গোপন' সন্তান জন্ম দিতে চেয়েছিল হানিপ্রীত!

রাম রহিমের সঙ্গে 'গোপন' সন্তান জন্ম দিতে চেয়েছিল হানিপ্রীত!

ধর্ষণের দায়ে সাজাপ্রাপ্ত ভারতের হরিয়ানার বিতর্কিত ধর্মগুরু রাম রহিমের সঙ্গে একটি 'গোপন' সন্তান জন্ম দিতে চেয়েছিল তার কথিত পালিতা কন্যা হানিপ্রীত ইনসান। এরপর সেই সন্তানকেই রাম রহিমের আখড়াবাড়ি ডেরা সাচ্চা সওদার উত্তরাধিকারী এবং রাম রহিমের অনুসারীদের নিয়ে গঠিত সম্প্রদায়ের নেতা হিসেবে ঘোষণার পরিকল্পনা ছিল তাদের! আর এ জন্য তারা একটি ছেলে সন্তানই চেয়েছিলেন।

 

গণমাধ্যমকে এমনই বিস্ফোরক তথ্য দিয়েছেন রাম রহিমেরই সাবেক এক শিষ্য ও ডেরার অনুগামী। তার নাম গুরুদাস সিং তৌর। তিনি রাম রহিমের বিরুদ্ধে ভারতের গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআই এর দায়ের করা মামলার একজন সাক্ষী। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে ভারতের সংবাদ মাধ্যম ইন্ডিয়া টুডে।

 

কিন্তু তাদের ওই গোপন উত্তরসূরি জন্ম দেওয়ার পরিকল্পনা ব্যর্থ হয়। রাম রহিমের সাবেক ওই শিষ্য আরো অনেক গোপন তথ্য জানান।

 

এ ছাড়া রাম রহিমের অনেক শিষ্যই বিশ্বাস করেন, রাম রহিমের সার্বক্ষণিক সঙ্গী হিসেবে আবির্ভুত হওয়ার আগে হানিপ্রীতও তার দ্বারা ধর্ষিত হয়েছিলেন।

 

ইন্ডিয়া টুডের সঙ্গে রাম রহিমের ওই সাবেক শিষ্য দাবি করেন, যেই দুই সাধ্বীর ধর্ষণের অভিযোগের ভিত্তিতে রাম রহিম এখন জেল খাটছেন তাদের মতোই ভাগ্য হয়েছিল হানিপ্রীতের। হানিপ্রীতকেও রামি রহিম তার গোপন আবাসস্থল 'গুফা'তে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করেছিলেন।

 

কিন্তু হানিপ্রীত রাম রহিমের বিরুদ্ধে অভিযোগ না করে বরং তাকে ব্ল্যাকমেইল করে এবং নিজের জন্য নানা সুবিধা আদায় করে নিতে থাকে। এবং তার সার্বক্ষণিক সঙ্গিনী হয়ে ওঠে।


রাম রহিমের সাবেক গাড়িচালক খাট্টা সিং এবং তার ছেলে গুরুদাস সিং (এই গুরুদাস সিবিআই এর গুরুদাস সিং নন) বলেছেন, তারাও হানিপ্রীতকে রাম রহিমের গোপন আস্তানা গুফায় ঢুকতে দেখেছেন। এরপর যখন হানিপ্রীত ওই গুহা থেকে বেরিয়ে আসছিল তখন তার চোখে পানি ছিল। গুরুদাস জানান তিনি ও তার কাজিন সে দিন গুফার দরজায় পাহারায় ছিলেন যে দিন ওই ঘটনা ঘটে।

 

গুরুদাস বলেন, 'হানিপ্রীত সে দিন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছিল। এবং সেখান থেকে বেরিয়ে সোজা তার দাদার কাছে চলে গিয়েছিল। তার দাদা সে সময় রাম রহিমের ডেরার ক্যাশিয়ার হিসেবে কাজ করছিলেন। হানিপ্রীতের দাদা ওই ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়েছিলেন এবং রাম রহিমের সামনে প্রতিবাদও জানিয়েছিল। কিন্তু পরে রাম রহিমের গুণ্ডারা হানিপ্রীতের দাদার মুখ বন্ধ করে দেয়।

 

একই দাবি করেছিলেন হানিপ্রীতের স্বামী বিশ্বাস গুপ্ত। তিনি বলেন তিনি নিজেও নাকি হানিপ্রীতকে রাম রহিমের সঙ্গে গোপনে মিলিত হতে দেখেছেন গুফাতে। আর সে সময় তাকে বাইরে দাঁড় করিয়ে রাখা হয়েছিল।

 

হানিপ্রীতের স্বামী আরো বলেন, 'রাম রহিম কখনোই হানিপ্রীতকে নিজের পালিতা কন্যা হিসেবে প্রকাশ্য ঘোষণা করেননি। তাকে দত্তক মেয়ে হিসেবে কখনোই নেননি রাম রহিম।

 

গুরুদাস সিং তৌরও বলেন, রাম রহিম ও হানিপ্রীত স্বামী-স্ত্রীর মতোই বাস করতেন ডেরায়।

 

তৌর এর ভাষ্যমতে, হানিপ্রীতই রাম রহিমের সঙ্গে সন্তান জন্ম দিতে চেয়েছিলেন। এবং সেই সন্তানকে রাম রহিমের উত্তরসূরি বানাতে চেয়েছিলেন। এ জন্য হানিপ্রীত রাম রহিমের ছেলে জাসমিত সিংয়ের তার বাবার উত্তরসূরি হওয়ার দাবির বিরুদ্ধে উঠেপড়ে লেগেছিলেন। এবং তাকে বাবার গদির কাছ থেকে সরিয়ে দিতে চেয়েছিলেন।

 

২০০৭ সালেই রাম রহিম তার ছেলে জাসমিত সিংকে নিজের উত্তরসূরি ঘোষণা করেছিলেন। কিন্তু হানিপ্রীতের প্রভাবে সেই ঘোষণা পরে বাতিল করেন রাম রহিম।

 

গুরুদাসের তথ্য মতে, হানিপ্রীত ও রাম রহিম তাদের জন্ম দেওয়া ওই সন্তানের আসল বাবার পরিচয়ও গোপন রাখতে চেয়েছিল। এবং হানিপ্রীতের স্বামীকেই ওই সন্তানের বাবা বলে পরিচয় দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু রাম রহিমই তাকে লালন-পালন করতেন। এবং বড় হলে পরে তাকে নিজের উত্তরসূরি ঘোষণা করতেন।

 

কিন্তু হানিপ্রীতের স্বামী তাকে তালাক দেওয়ায় ওই পরিকল্পনা আর বাস্তবায়ন করতে পারেননি হানিপ্রীত ও রাম রহিম।
সূত্র : ইন্ডিয়া টুডে

 

 


প্রতিদিনের খবরগুলো ফেসবুকে পেতে নিচের লাইক অপশনে ক্লিক করুন-

Logo

সম্পাদক: পল্লব মুনতাকা। জ্যাকম্যান, মেডওয়ে, ইউএসএ
ইমেইল: mail.newsevent24@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | newsevent24 2017